পারব না কে, না বলো। নিজেকে খুজে বের করো পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তি দের একজন-- জেফ বেজোস ভয়কে করতে হবে জয় হার না মানার গল্প  গুগল ও ফেজবুকের প্রতিষ্ঠাতা সবচেয়ে বেস্ট মটিভেশনাল স্পিকার-  সন্দীপ মহেশ্বরী

Saturday, February 16, 2019

কোন সমস্যাই বড় কিছু নয় , একটু চিন্তা করলেই সমাধান আসবে



রেলগাড়িতে একজন  বিজ্ঞ লোকের  সামনে বসে ছিল এক যুবক। যুবকের মুখে দুশ্চিন্তার ভাব ফুটে আছে। কিছুক্ষণের মধ্যে দুজনের পরিচয় হল।এক পর্যায়ে যুবকটি অর্থনীতিবিদকে বলল: ‘আমার স্ত্রী আর আমি একই ক্লাশে পড়াশোনা করতাম।  সাত বছর আগে আমি বিয়ে করেছি। আমার একটিবছরের মেয়ে আছে।


 সে  খুবই  ভালো একটা মেয়ে। তার কাজ কর্মেও আমি সন্তুষ্ট। তাছাড়া কর্মক্ষেত্রে আমিও যথেষ্ট সাফল্য অর্জন করেছি।কিন্তু এক বছর আগে ঘটল এক বিপদ, একটি সুন্দরী মেয়ের সঙ্গে আমার পরিচয় হয়েছিল এবং আমাদের মধ্যে ভালোবাসার সর্ম্পক গড়ে উঠে এবং ধীরে ধীরে আমি ঐ মেয়েটিকে আরো বেশি ভালো বাসতে শুরু করেছি।

- পরিস্থিতিতে তুমি কী করতে চাও?’ বিজ্ঞ  লোকটি যুবককে জিঙ্গেস করলেন।আমি ঠিক করেছি “আমি আমার স্ত্রীতে তালাক দিয়ে দিব”। কিন্তু এখনো - ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি।তাই ভয়ানক দুশ্চিন্তায় আছি।’ ‘দুটোর মধ্যে একটি বাছাই করা সত্যিই সহজ কাজ নয়। - নিয়ে তোমার মনে যে দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাজ করছে তা খুবই স্বাভাবিক।

 - কথা বলে অর্থনীতিবিদ কিছুক্ষণ চুপ করে রইলেন; তারপর বললেন: ‘কিন্তু  একটু চিন্তা ভাবনা করলে তোমার এই সমস্যা থেকে বের হবার উপায় বের করা একেবারেই কোন ব্যাপার না।ধরা যাক, তুমি তোমার বসের হয়ে একটি বড় কাজ করলে। এখন তিনি তোমাকে পুরষ্কৃত করতে চান। তিনি তোমাকে দুটো পুরষ্কারের একটি বেছে নিতে বললেন। পুরষ্কার দুটি হচ্ছে: তোমাকে নগদ পাঁচ লাখ টাকা দেয়া হবে; অথবা ছয়  বছর পর তোমাকে ছয় লাখ টাকা দেয়া হবে। তুমি কোনটি নেবে?” ‘অবশ্যই আমি নগদ পুরষ্কারই নেবো’, যুবক কোনোকিছু না- ভেবেই উত্তর দিল।

কেন?’ বিজ্ঞ  লোকটি জিজ্ঞেস করলেন।
যুবকটিও এবার  বিজ্ঞের মতো জবাব দিল।

কারণ, ভবিষ্যত অনিশ্চিত। কে জানে কয়েক বছর পর কী ঘটবে? ছয় বছর পর আমার বস না- থাকতে পারেন। অথবা ছয় বছর পর টাকার মূল্যমানও হ্রাস পেতে পারে।

তখন বিজ্ঞ লোকটি হেসে বলল,”তুমি ঠিকই বলেছ।ভবিষ্যতের টাকার চাইতে বতর্মান টাকার মূল্য অনেক বেশী।ঠিক তেমনি, ভবিষ্যতের সুখের চাইতে বতর্মান সুখের মূল্য বেশী। কেননা, ভবিষ্যত সবসময় অনিশ্চিত। কে জানে ভবিষ্যতে হয়তো সেই সুন্দরী মেয়ে আর তোমাকে ভালোবাসবে না; তোমাদের দুজনের সুসম্পর্কতখন না- থাকতে পারে।

লোকটি আরো বলল  “তোমার বর্তমান স্ত্রী সম্পর্কে তুমি জানো; সে তোমাকে ভালোবাসে এবং সে ভালো মানুষ। তাই তোমার উচিত বর্তমানের ওপর ভরসা করা, বর্তমান সুখকে আঁকড়ে ধরা; ভবিষ্যতের সুখের আশায় বর্তমান সুখকে ত্যাগ না করা।

লোকটির  কথা শুনে যুবকের মনের সকল দ্বিধাদ্বন্দ্ব একমুহূর্তে দূর হয়ে গেল। সে বলল: ‘আমি পরের ষ্টেশনে নামবো। আমি আমার মেয়েবন্ধুর কাছে যাবো না, যাবো আমার স্ত্রীর কাছে। গোটা বিষয়টি এখন আমার কাছে দিনের আলোর মতো পরিষ্কার হয়ে গেছে। আমি খুব ভালো ভাবেই বুঝতে পেরে গেছি যে আমার এখন কি করা উচিত আর কি না করা।আমি জানি আমি আমার বর্তমান নিয়ে সুখে আছি আর চিরকাল এটাকে ঘিরেই সুখে থাকব।

 এটি নিছকই একটা গল্প মাত্র। এটার বাস্তবের সাথে কোন মিল নেই।
 আমরা শুধুমাত্র আপনাদের কাছে এটাই তুলে ধরতে চেয়েছি যে, আমাদের জীবনেও এমন বা এর চেয়ে যত বড় বিপদই আসুক না । যদি ধৈর্য ধরে ঠান্ডা মাথায় সেই সমস্যা টিকে নিয়ে একটু চিন্তা করি তাহলেই তার সমাধান বেরিয়ে আসবে।






0 Comments:

Post a Comment