পারব না কে, না বলো। নিজেকে খুজে বের করো পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তি দের একজন-- জেফ বেজোস ভয়কে করতে হবে জয় হার না মানার গল্প  গুগল ও ফেজবুকের প্রতিষ্ঠাতা সবচেয়ে বেস্ট মটিভেশনাল স্পিকার-  সন্দীপ মহেশ্বরী

Monday, April 15, 2019

অদৃশ্য ভালবাসা : পর্ব --১

দুই বন্ধু মিলে ইদের ছুটিতে ঘুরতে বেরিয়েছি। আমি আরজু আর আমার প্রিয় বন্ধু শাহেদ। আমাদের অল্প কয়েকদিনের বন্ধুত্ব ।আমাদের থাকার জায়গাটি ঠিক করল আমার বন্ধুটি।তার দাদার পুরানো বাড়ি। শুনেছি এখানটাকে আগে তার দাদা থাকত দাদা মারা যাওয়ার পর ওর বাবারা শহরে গিয়ে থাকতে শুরু করে।যাই হোক রাত টার সময় বন্ধুটি তার গ্রামের বাজারে গেল খাবার আনতে। যাওয়ার আগে বলে গেল আরজু তোর জন্য এই সারা গ্রাম দিয়ে দিলাম। 


তুই যেখানে ইচ্ছা যেতে পারিস। শুধু ওই সামনের বাড়িটাতে যাবি না। কেন প্রশ্ন করাই কোন উত্তর না দিয়েই চলে গেল (শাহেদ যাওয়ার পর) আমি মোবাইলে ফেজবুকটা চালু করে নিউজ ফিড গুলো পড়তে থাকলাম। এক ঘন্টা পার হয়ে গেল তবু বন্ধুটির ফিরে আসার দেখা নেই। এদিকে রাতে যেন গ্রাম পুরো নিরব হয়ে গেল। যদিও খুব বেশি রাত নয় তবুও পুরো গ্রাম জুড়ে যেন নিস্তব্দতা ছেয়ে গেছে। আমি আপন মনে ফেজবুক চালাচ্ছি আর গুন গুন করে গান গেয়ে চলেছি। এরই মধ্যে আমার মনে হলো বাইরে কে যেন হাটাহাটি করছে। 


কে শাহেদ? বলে আমি বাইরে বেরিয়ে এলাম। আর নিজেই যেন নিজের চোখটাকে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না যা দেখলাম।এক অপরুপ সুন্দরি মেয়ে। চোখ ফেরানো যাচ্ছে না তার চোখের দিক থেকে। রাতের সব নিরবতা ভেঙে দিয়ে মেয়েটি বলে উঠল আপনি খুব সুন্দর করে গান করতে পারেন তো।আপনার গানের গলাটাও খুব সুন্দর। জানেন আমিও খুব গান ভালবাসি। ওহো আমার পরিচয়ই তো আপনাকে দেওয়া হয়নি। আমার নাম নিলা। ওই সামনের বাড়িটাতে থাকি।মেয়েটি সামনের বাড়ি থাকে এটা শুনে আমি অবাক হলাম। 


মনে মনে শাহেদকে আচ্ছা মতো গালি দিলাম।ভাবলাম সালার বোধহয় এই মেয়েটার সাথে চক্কর বক্কর রয়েছে। দেখতে দেবে না বলেই সামনের বাড়িতে যেতে নিষেধ করেছে।
মেয়েটি বলেই বসে পড়ল আমরা কি এখানে কিছু সময় বসতে পারি।এরই মধ্যে মেয়েটি বলে উঠল শুনলাম শাহেদ এসেছে। তাই ওকে দেখতে চলে এলাম আমার খুব ভাল বন্ধু আপনার কথা অনেক শুনেছি শাহেদের মুখে ।ও বলছিল আপনি নাকি খুব ভাল গল্প লেখেন। আমার জন্য একটা গল্প লিখে দেবেন। হ্যা নিশ্চয় কেন নয়।


(
মুখে কথা বললেও মেয়েটার কথা আমার খুব আজব লাগল। কিছু দিনের বন্ধুত্ব আমার আর শাহেদের এরই মধ্যে শাহেদ আমার কথা অনেক কি করে এর সাথে বলতে পারে। আবার এই রাতের বেলা আমাদের আসার কথা একে কে জানাল এই গভীর রাতে এখানে বসে কেউ গল্প করতে চাই তা আবার আমার মতো অপরিচিত একজনের সাথে ) 


তবে যাই হোক একাকি সময় পার করার চেয়ে একরম সুন্দরি একটা মেয়ের পাশে বসে গল্প করে সময় কাটানোই ভাল মনে করলাম।তার কথাতে রাজি হলাম। বললাম আপনার জন্য আমি কেমন গল্প লিখব আর তার চরিত্র গুলোই বা কেমন হবে তার কিছুই তো আমি জানি না। 
আপনি চিন্তা করবেন না আমি আপনাকে সব কথা বলে দেব।


0 Comments:

Post a Comment