পারব না কে, না বলো। নিজেকে খুজে বের করো পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তি দের একজন-- জেফ বেজোস ভয়কে করতে হবে জয় হার না মানার গল্প  গুগল ও ফেজবুকের প্রতিষ্ঠাতা সবচেয়ে বেস্ট মটিভেশনাল স্পিকার-  সন্দীপ মহেশ্বরী

Thursday, April 11, 2019

নির্জন দ্বীপ-- ২য় পর্ব

বিকালের সুন্দর পরিবেশ দেখে আলভি ভুলেই গেল যে এখানো 

কোনো ধরনেরবিপদ থাকতে পারে। কিন্তু কিছুতেই আলভি এটা বুঝে উঠতে পারছিল না যে 

এই দ্বীপে আসার সময় সেই স্বাগত জানান
মেয়ে কন্ঠ টি কার। সব ভাবতে ভাবতে
সন্ধ্যা হয়ে এল। আলভি চেয়েছিল এই সুন্দর
জায়গা টির সন্ধ্যাটার সৌন্দর্য উপভোগকরতে।


আলভি তার বন্ধুদের বলল আজ রাতে দ্বীপের এই জায়গাটিতেই সে থাকবে। সবাই তার কথা মত সেখানে তাবু টাঙাল।আগুন জ্বালিয়ে তার চারপাশে বসে সন্ধ্যাহওয়ার অপেক্ষা করতে লাগল। 

সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে হট্যাৎ যেন বাতাস থেমে গেল, পাখির ডাক বন্ধ হয়ে গেলচারিদিকে অন্ধকার নেমমে এল দেখতে দেখতে। যেন কেউ তাদের নির্দেশ দিল এসব বন্ধ হতে। আলভির কয়েকজন বন্ধু একটু ভয় পেল এভাবে হট্যাৎ প্রকৃতির পরিবর্তনে। আলভি সকলকে সাহস জোগাল আর বলল সবাই ঘুমাতে চল কাল সকালথেকে কাজ শুরু করতে হবে। মাঝ 

রাতে হট্যাৎ কোন এক শব্দে আলভির ঘুম ভেঙে গেল।যেন এমন মনেনে হচ্ছিল কেউ খুব জোরপূর্বক কিছু গাথছে। অল্প সময়ের 

শব্দ টাকেআলভি পাত্তা নি দিয়ে আবার ঘুমিয়েপড়ল। ঘুম ভাঙল তার সহকর্মী জয়ার চিৎকারে।সবাই একসাথে বাইইরে এল আরযেটা দেখল সেটা দেখার জন্য কেউ প্রস্তুত ছিল না। একটা মানুষের লাশ। ঘাড়ের পাশ থেকে একটা ডাল গেথেবেরিয়ে গেছে অন্য পাশ দিয়েকোমরের কাছছেও এই রকম আর একটাডাল গেথে আছে। আর তার পিঠ কেটে লেখা আছে স্বাগতম। কাটা জায়য়গা দিয়ে এখনও রক্ত পড়ছে। আলভি ভাবল হইত তাদেরই কেউ। কিন্তু পরবর্তী তে সে যখন দেখল তারাসবাই আছে তখন লাশ টাকে সোজা করা হল  

কেউ লাশটার মুখ খুব বিশ্রী ভাবে নষ্ট করে দিয়েছে বোঝা যাচচ্ছে না কার লাশ। লাশটাকে মাটি চাপাপা দায়ে আলভি তার কাজে মনন দিল। তার কাজই তো এখন এই লাশের রহস্যটা উদ্ধার করা।
আলভি তার বন্ধুরা প্রববেশ করল গভীর জঙ্গলে। আলভির মনে অন্য চিন্তা কার ঐ লাশ, এই নির্জন দ্বীপে কোথা থেকে এল,
বারবার তাদেরকে এভাবে স্বগগতম কে জানাচ্ছে।


কি আছে এই দ্বীপে। এই সব ভাবতে ভাবতে সে হেটে চলেছে।তার
পেছনে তার সহকর্মীরারা। এই সুনন্দর প্রকৃতির মধ্যে এত ভয়নক কি। হাটতে হাটতে হট্যাৎ কিছু একটা থেকে হোচট খেয়ে আলভি থেমে দাড়াল।কি এটা আর একটা লাশ। তবে এবার লাশটার মাথে নেই। কে যেন মাথাটা টেনে ছিড়ে দিয়েছে। আর পিঠ কেটে লেখা আছে বাচতে চাইলে ফিরে যাও। 


আলভি এবার একটু ঘাবড়ে গেল। মনে হচ্ছে এই মাত্র কেউ লাশটার পিঠ কেটে এগুলো লিখল তাজা রক্ত বের হচ্ছে। দ্বীপ টার সৌন্দর্য আলভি কে এতটাই মুগ্ধ হয়েছিল যে সে এখান থেকেযেতে চাইছিল না। হাটতে হাটতে তারা এক গুহার কাছে এসে পৌছাল। কি আছে এই গুহায় প্রচন্ড বাজে
আর পচা গন্ধ আসছিল। গুহার ভেতর থেকে।


0 Comments:

Post a Comment