পারব না কে, না বলো। নিজেকে খুজে বের করো পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তি দের একজন-- জেফ বেজোস ভয়কে করতে হবে জয় হার না মানার গল্প  গুগল ও ফেজবুকের প্রতিষ্ঠাতা সবচেয়ে বেস্ট মটিভেশনাল স্পিকার-  সন্দীপ মহেশ্বরী

Sunday, June 30, 2019

যে লোকেরা কিছুই করে না, তারাই ধামাকা করে



"যে লোকেরা কিছুই করে না, তারাই ধামাকা করে "
মটিভেশনাল গল্প। নিজেকে সব সময় অনুপ্রাণিত করুন। 

এই কাহীনিটা এক ব্যাক্তির যে  ব্যাক্তিটি   যেকোন ধরনের দরজার   যেকোন লক খুলতে পারত। সে যারই লক হোক না কেন? কোন ঘরের , কোন ব্যাংকের ,জেলের লক, কোন বড় লকারের লক, যেকোন ধরনের বড় বড় হাই সিকিউরিটির লক সে খুলতে পারত।  লোক জন তাকে নিয়ে  বিশ্মত হয়ে যেত যে কি ভাবে করে  এটা।

Friday, June 28, 2019

খারাপের ফল খারাপই হয়

অনেক অনেক দিন আগে । কোন এক গ্রামে  বাস করত শাহিন নামে একটা । ছেলেটা যেমন দেখতে সুন্দর ছিল । তেমনই ভদ্রও ছিল। সারা গ্রামের মানুষ তাকে ভালোবাসত শুধু  একজন ব্যাক্তি ছাড়া। যে ছিল একটু হিংসুক প্রকৃতির । সেকখনো অন্যের ভালো দেখতে পেত না। বিশেষ করে তো শাহিনের ভালো নাই।


Thursday, June 27, 2019

লটকের জোক্স (পর্ব -- ৫)


মজার ফানি জোক্স

লটকে আর বাবার মাঝে কথা হচ্ছে।।

লটকে:: বাবা বাবা 2019 এ তো আমার বউ আমাকে দারুন জিনিস উপহার দিয়েছে। তাড়াতাড়ি বাড়ি চলো দেখবে।
বাবা:: কেন কি দিয়েসে সেটা তো বল তার পর যাচ্ছি।
লটকে:: ও আমরা দুই জন ছিলাম এখন তো তিন জন হয়ে গেছি।
বাবা:: সে তো সুখবর।। তা কি হলো ছেলে না মেয়ে।
লটকে:: আরে ছেলেও না মেয়েও না।। আমার বউ আর  একটা বিয়ে করে বাড়ি  এনেছে।

শিক্ষক আর লটকের মাঝে কথা হচ্ছে:

লটকে:: স্যার আপনাকে একটা প্রশ্ন করব।
শিক্ষক:: হ্যা  কর।
লটকে:: স্যার বলেন দিনি পৃথীবিতে এমন একটা জুটি যা একটা হারিয়ে গেলে অন্যটা  চলতে পারে না।
শিক্ষক:: কি রে স্বামী স্ত্রী নাকি।
লটকে:: কি বলেন স্যার , শোনেন কি বউ হারালে বউ পাওয়া যাই।।
শিক্ষক :: তাইলে পারলাম না তুই বল।।
লটকে:: স্যার জুতো জুতো। একটা যেদিন হারাই যাবে সেদিন বুঝবেন।

লটকে আর বন্ধুর মাঝে কথা হচ্ছে।

বন্ধু :: কিরে লটকে !! সেদিনকে পুকুরের পানিতে টিভি নিয়ে কি করছিলি রে।
লটকে:: আর বলিস না । সেদিন  একটা টিভি কিনতে গিছিলাম।  তা দোকানদার বলল সাদা টিভি নিতে হবে না ।কালার টিভি নিয়ে যান। কালারের গিরান্টি আছে।। তাই আমি আবার পুকুরে ধুয়ে দেখছিলাম কালার উঠে কিনা।। দোকানদার রা যেভাবে আজকাল মানুষদের বোকা বানায়। কি আর বলব।

বাবা আর লটকের মাঝে কথা হচ্ছে।

বাবা:: কিরে লটকে তুই চুরি করে বিয়ে করলি তা তো ঠিক আছে । কিন্তু এরকম কালো, ট্যারা , চোখ কাটকা ব্যাটকা মেয়ে বিয়ে করলি কেনে??
লটকে:: ও বাবা তুমি আরো জোরে বলো । ও মাল বার কানেও শুনতে পাই না।।

লটকে আর বন্ধুর মাঝে কথা হচ্ছে।।।

বন্ধু:: কিরে লটকে তুই তো ইংল্যান্ডে গিছিলি। তা তোর ইংরেজি বলতে কষ্ট হয় নি।
লটকে:: আমার ইংরেজি বলতে কোন কষ্ট হয় নি। কিন্তু আমার ইংরেজি যারা শুনেছে তাদের খুব কষ্ট হয়েছে।।

লটকের পক্ষ থেকে কিছু  বোনাস  জোক্স:::

লটকে আর তার ছেলের মাঝে কথা হচ্ছে::
লটকে:: খগেন ও খগেন এই ভোর তো অনেক  খানি হলো দেখতে সূর্য উঠেছে কি??
খগেন:: না বাবা উঠেনি।।
লটকে:: ওরে লাইট মেরে দেখ ।

লটকে আর তার বন্ধুর মাঝে কথা হচ্ছে:

বন্ধু:: বুঝলি লটকে আমার বাপ যা করেছে তোর বাবা তা জিবনেও পারবে না।।
লটকে:: কি!!! আর আমার বাপ যা করেছে তোর চোদ্দগোষ্ঠিতেও কেউ পারবে না।
বন্ধু:: আমার বাবা পদ্মাই ডুব দিয়ে যমুনায় উঠেছিল।। 
লটকে:: হ্যা শুধু এইটুকু।। আর আমার বাপ তো বাজারের কুড়ি তলা বিল্ডিং এর উপরের ট্যাংকের মধ্যে ডুব দিয়ে আমাদের বাড়ির কলের নল দিয়ে বের হইছিল।।
বন্ধু:: ঐ সরু নল দিয়ে !! এ তাইলে মনে হয় আমার বাপ পারবে না।।

লটকে এখন নেতা।। 

লটকে:: এই পুচকে    আগের বছর তোর কাজে আমি খুশি হয়েছি ।। তোকে ১০ হাজার টাকার চেক দিলাম নে।।
পুচকে:: ধন্যবাদ মালিক।।
লটকে:: ধন্যবাদ টন্যবাদ কিছু লাগবে না।।  এ বছর যদি ভালো কাজ না দেখাতে পারিস । তাহলে পরের বছর ঐ চেকে সই করে দেব।

Wednesday, June 26, 2019

লটকের জোক্স (পর্ব--- ৪)


ফানি জোক্স

লটকে এখন ডাক্তার।। লটকে ও তার রোগীর মাঝে কথা হচ্ছে।।

রোগী:: ডাক্তার সাহেব , আমার একটা ভালো ঔষধ দেন দিনি।। এই রাতের বেলা ঘুমের ঘোরে আমার নাক ডাকার ঠেলাই আমারি ঘুম ভেঙে যাই ।।  

লটকে:: ওও এই ব্যাপার ও নিয়ে আপনি চিন্তা করবেন না। আমি আপনাকে একটা বুদ্ধি দিচ্ছি যাতে ঔষধ লাগবে না।।  “রাতের বেলা যেই ঘরে  নাক ডাকেন সেই ঘরে ঘুমোবেন না।। অন্য ঘরে ঘুমোবেন । ঐ শব্দ আর পাশের ঘরে যাবে না দেখবেন দিব্যি সুন্দর ঘুম হবে।।”


লটকে আর তার বান্ধবীর সাথে কথা হচ্ছে।।


লটকে:: সুমি এই সুমি কদিন ধরে তোকে একটা কথা বলব বলবে করে বলতেই পারিনি।। আর বলেই ফেলি ।। “ আমি না তোকে খুব ভালোবাসি” I Love You
সুমি:: কিন্তু লটকে দাদা, আমি তো তোমাকে  আমার ভাইয়ের চোখে দেখি।।

লটকে:: কি!!!!  কেন তোমার কি চোখ নেই??


লটকে আর বন্ধুর মাঝে কথা হচ্ছে।।

বন্ধু:: কিরে লটকে  এই দিনের বেলা লাইট মেরে মেরে জঙ্গলে কি খুজতিছিস।।
লটকে:: আর বলিসনে   এই রেতের বেলা আমার বউ হারিয়ে গিয়েছে।। অন্ধকারে খুজতে পারিনি।। সকাল বেলা লাইটটা কিনেই বউ খুজতে চলে এসেছি।। (আদর্শ স্বামী)

লটকে আর মোবাইল রির্চাচ দোকানদারের সাথে কথা চলছে।

লটকে:: ভাই আপনার দোকানে কি সব ধরনের রির্চাচ হয়।
দোকানদার:: হ্যা হয়।।
লটকে:: ওও ভালো ভালো।।  আমার বাড়িতে চাল ফুরাই গিয়েছে।। ১ বস্তা চাল রির্চাচ করে দেন দিনি।।


লটকে আর তার বন্ধু মাঝে কথা হচ্ছে।।

বন্ধু :: কিরে লটকে রোজ রোজ তোরে দেখি সকাল বেলা বের হোস আর দুপুরে বাড়ি চলে আসিস। কাজ টাজ করিস না নাকি।।

লটকে:: রোজ রোজ কাজ করি আমি । আর শালার বউ খেয়ে খেয় শরীর ডা কি করেছে বলতো।। এই জন্য আমি বুদ্ধি করিছি । এই প্রতিদিন সকালে বৌকে বলি ডিম ভেজে দে । আমি খেয়ে দেয়ে যাই এদিক সেদিক ঘুরে আবার চলে আসি বাড়ি।। এসে বলি আজ কাজ হয় নি।।
সেদিন বাড়ি  এসে  বলিছি বৌ কাজ তো হয় নি। কমলাপুর স্টেশনে সে এক ট্রেনের চাকা বাস্ট হয়ে গিয়েছে।। সে নাট মাট কিছু খুজে পাওয়া যাচ্ছিল না।। বৌ আমার বলছে , “ তা তোমার কিছু হয় নি” 
বন্ধু:: তা তুমি কি বললে?
লটকে::  না না আমার আর কি হবে আমি তো দূরি দাড়ায়ে ছিলাম

লটকের জোক্স ( পর্ব --- 3)


ডাক্তার আর লটকের মাঝে কথা হচ্ছে।।

লটকে:: ডাক্তার বাবু , ডাক্তার বাবু, আমার পেটে খুব ব্যাথা ।
ডাক্তার:: ও তা  তোমার পায়খানা কেরম হয়।।
লটকে:: ডাক্তার বাবু  আমি গরিব মানুষ আর পায়খানা আর কেমন হবে।। ও তিন দিকে বেড়া সামনের দিকটা তাও একটু ছেড়া।।


শিক্ষক আর লটকের মাঝে কথা হচ্ছে।

লটকে:: স্যার একটা প্রশ্ন করব।।
শিক্ষক:: হ্যা কর।
লটকে:: স্যার এই বিয়ের দিনে বর আর বউ হাত ধরা ধরি করে কেন??
শিক্ষক:: (কত বড় হারামজাদা) ও তুমি জানো না বুঝি।।  তারা বক্সিং খেলবে তো তাই খেলার আগে হ্যান্ডশেক করে নেয়।।
লটকে:: ওও তাইলে তো খেলাটা দেখতে যেতে হয়।

লটকে আর  দারোগা বাবুর মাঝে কথা হচ্ছে।।

লটকে:: দারোগা বাবু দারোগা বাবু , আপনি তাড়াতাড়ি আমার বাড়ি চলেন । আমি একটা চোর ধরিছি।
দারোগা:: ওও তা চোরকে বেধে রেখেছিস তো।।
লটকে:: হ্যা সে কি আর বলতেন। শালার চোরের পা  এমন  ভাবে বেধেছি যে সারা জিবন চেষ্টা করলেও পালতে পারবে না।
দারোগা:: আর হাত ??
লটকে:: হাত তো বাধিনি গো।

ডাক্তার আর লটকের মাঝে কথা হচ্ছে।।

লটকে:: ডাক্তার বাবু , ডাক্তার বাবু, আপনি আমাকে একটু দেখুন তো ।। আমাকে পাগলা কুত্তায় কামড় দিছে।।
ডাক্তার :: এই তুমি জানো না, আমি শুক্রবারে রুগী দেখিনে।
লটকে:: আমি তো জানি , কিন্তু আমার মনে হয় ঐ পাগলা কুত্তাটাই জানে না।

কাঠমিস্ত্রি লটকের সাথে তার বন্ধুর কথা হচ্ছে।।

বন্ধু:: এই লটকে আমাকে একটা খাট বানিয়ে দিতে হবে । খুব মজবুত করে বানিয়ে দিতে হবে কিন্তু।। তোর ভাবিতো আবার একটু মোটা।।

লটকে:: ও তুই চিন্তা করিস নে। এমন মজবুত করে খাট বানিয়ে দেব যে, পাড়ার সব ব্যাটা ছেলেরাও যদি ভাবির পাশে শোই তাও কিছু হবে না।

লটকের জোক্স ( পর্ব---- ২ )



লটকে আর তার ফিজিক্স শিক্ষকের মাঝে কথা হচ্ছে ক্লাসের ভেতর।।

শিক্ষক: নিউটন একবার  বাগানের আপেল গাছের নিচে বসে ছিল এমন সময় তার মাথাই একটা আপেল পড়ল আর সে গ্রাভিটির সূত্র আবিষ্কার করে ফেলল।

লটকে: জ্বি স্যার , নিউটন যদি ক্লাসের ভেতর  আমাদের  মতো বই নিয়ে বসে থাকত তাহলে আর কিছুই আবিষ্কার হতো না।

Tuesday, June 25, 2019

লটকের জোক্স ( পর্ব --- ১ )




১.লটকে আর  শিক্ষকের মাঝে কথা হচ্ছে::

শিক্ষক:: এই লটকেতোর জন্মদিন কবে রে??

লটকে:: স্যার আমার কোন জন্মদিন নেই।
শিক্ষক::  কি কথা কচ্ছিস সারা দেশের মানুষের জন্মদিন আছে আর তোর কোন জন্মদিন নেই।।
লটকে:: স্যার জন্মদিন থাকবে কি করে  আমি তো রাতে জন্মেছি।


অদৃশ্য ভালবাসা :: পর্ব -৩


অসাধারণ ভালবাসা গল্প

মেয়েটি তার গল্প বলা শুরু করল।কোন এক গ্রামে বাস করত একজন দরবেশ বাবা। তার কাজই ছিল শুধু মাত্র মানুষের কাছ থেকে মিথ্যা বলে টাকা পয়সা হাতানো।সেই গ্রামের এক খুব সুন্দর মেয়ে ভালবাসল সেই গ্রামেরই আর এক ছেলেকে।দিনে দিনে মেয়েটি ছেলেটিকে খুব বেশিই ভালবাসতে শুরু করল। আর একদিন সুযোগ দেখে ছেলেটিকে তার মনের কথা বলে দিল।কিন্তু ছেলেটি বরাবরই মেয়েটিকে উপেক্ষা করে চলত।ছেলেটির মা বাবা কেউ বেচে ছিল না।


সময়ই বোঝে ভালবাসার মূল্য


অনেক অনেক আগে কোন এক গ্রীষ্মের ছুটিতে সবগুলো অনুভূতি  সাগরের মাঝে কোন এক  দ্বীপে ঘুরতে গেয়েছিল। তারা সকলেই খুব সুন্দর সময় কাটাচ্ছিল।হট্যাৎ করেই সাগরে ঝড়ের বিপদ সংকেত শোনা গেল বিপদ সংকেত শোনার সাথে সাথেই সকল অনুভূতি নিজ নিজ নৌকার কাছে ছুটে যেতে শুরু করল।



Monday, June 24, 2019

ব্যার্থতার গল্পসমগ্র (পর্ব -- ১)


ব্যার্থতা সাফল্যের শিখরে পৌছবার পথ। সিনিয়র টম ওয়াটসনের কথায়, “ যদি সফল হতে চাও তবে ব্যার্থতার হার দ্বিগুন করে দাও।
এই প্রসঙ্গে  আজ আমরা কয়েক জন ব্যার্থ  মানুষ যারা বার বার ব্যার্থতার স্বাদ গ্রহণের পর সফলতার স্বাদ পেয়েছেন । তাদের  জীবনের ব্যার্থতা গুলো একসাথে পড়তে চলেছি।



Sunday, June 23, 2019

মেধাবী ও সুবিবেচকের মাঝে পার্থক্য

একজন ব্যাক্তি রাস্তার ধারে সস্তার খাবার হটডগ বিক্রি করত। সে ছিল অশিক্ষিত, তার খবরের কাগজ পড়ত না। কানে কম শুনত, তাই রেডিও শুনত না। চোখের দৃষ্টি কমজোর তাই টেলিভিশন দেখত না। কিন্তু উৎসাহের সঙ্গে হটডগ বিক্রি করে বিক্রি লাভ অনেক বাড়িয়ে ফেলেচিল। ব্যবসা বেড়ে যাওয়ায় তার কলেজ থেকে পাশকরা গ্রাজুয়েট ছেলে তার সঙ্গে যোগ দিল।

Saturday, June 22, 2019

নেতিবাচক চিন্তার ফলাফল

এক শিকারীর শিকার করা পাখি খুঁজে নিয়ে আমার জন্য একটি শিক্ষত কুকুর ছিল। কুকুরটি জলের উপর দিয়ে হাঁটতে পারত। শিকারী যখন কুকুরটির এই অলৌকিক ক্ষমতার পরিচয় পেল তখন নিজের চোখকেই বিম্ভাস করতে পারছি না। বন্ধুদের নিকট কুকুরের এই আশ্চর্যজনক ক্ষমতা দেখবার অভিপ্রায়ে সে একদিন  তার বন্ধুকে হাঁস শিকারের আমন্ত্রণ জানাল।

নদীর অপর পারের ঘাসকে অনেক বেশি সবুজ মনে হয়

হাতের কাছের সুযোগটিতে যথার্তভাবে সদ্ব্যবহার করাই সঠিক মনোভব। একরের পর একর  ছড়ানো হীরে ভরা ক্ষেতটি ছেল হাতের কাছের সুযোগ। সোনার হরিণের সন্ধানে না ছুটে সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে প্রাপ্ত সুযোগের সদ্ব্যবহার করাই উচিত সুযোগ - সম্ভাবনা বোঝার ক্ষমতা যাদের নেই, যখন সুযোগ এসে তাদের দরজায় কড়া নাড়ে, তখন আওয়াজ হচ্ছে বলে বিরক্ত হয়।

Thursday, June 20, 2019

প্রকৃত শান্তি অর্থ কি?

শান্তি সে জায়গাতে থাকতে পারে না , যেখানে কোন অশান্তি নেই। প্রকৃত শান্তি সেটাই, যেটা সমস্ত বিপদের মধ্যে থেকেও শান্ত হৃদয়ে নিজেকে রাখতে পারে।প্রকৃত শান্তি থাকে আমাদের মনে আমাদের হৃদয়ে। আশা করছি গল্পটি আপনাদের অনেক ভালো লাগবে।।



Tuesday, June 18, 2019

পরিশ্রম বিহীন সম্পদ



একবার এক ব্যাক্তি সর্বোচ্চ পাহাড়ের চূড়াই উঠল সৃষ্টিকর্তার সাথে বলার জন্য।সে দীর্ঘক্ষন প্রার্থণা  করার পর সৃষ্টিকর্তা তার সামনে এসে দেখা দিল। লোকটি প্রশ্ন করল, “হে সৃষ্টিকর্তা, তোমার কাছে এক মিলিয়ন বছরের মানে কত সময়?”

সৃষ্টিকর্তা উত্তর করল, “ এক মিনিট বা তার কিছু কম সময়


Monday, June 17, 2019

জ্ঞানীদের প্রতিশোধ


একবার একজন জ্ঞানী সফল ব্যাক্তি একটা বড় আপেল বাগানের সাথে  একটা সুন্দর বাড়ি কেনে। কিন্তু তাকে নিয়ে সবাই খুশি ছিল না। একজন হিংসুক ব্যাক্তি বাস করত ঠিক তার ঘরের পাশেই।সে সবসময়ই সফল ব্যাক্তিটির সফলতাই হিংসা করত।ছোট করার বিভিন্ন কারণ খুজে বেড়াত।সে তার বাড়ির ময়লা আর্বজনা সফল লোকটির বাগানের মধ্যে ফেলত।

Sunday, June 16, 2019

সন্দেহপ্রবণ ভালবাসা


ভালবাসায় সন্দেহ রাখা উচিত নয়

যদি তুমি তোমার রিলেশনে ১০০% ভালবাসা না দাও। তবে তুমি অবশ্যই সবসময় সন্দেহ করতে থাকবে যে সেও তোমাকে ১০০% দিচ্ছে তো। তোমাকে অবশ্যই নিজের সর্বোচ্চ দিতে হবে। তবেই তো তুমি কারো কাছ থেকে তার সবকিছু পাবার আশা করতে পারো।ভালবাসার অন্যতম প্রধান শত্রুই হলো সন্দেহ।