পারব না কে, না বলো। নিজেকে খুজে বের করো পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তি দের একজন-- জেফ বেজোস ভয়কে করতে হবে জয় হার না মানার গল্প  গুগল ও ফেজবুকের প্রতিষ্ঠাতা সবচেয়ে বেস্ট মটিভেশনাল স্পিকার-  সন্দীপ মহেশ্বরী

Monday, July 1, 2019

স্থীরচিত্ত সাহসই সফলতার দোর

 “ স্থীরচিত্ত সাহসই সফলতার দোর” সকল মটিভেশনাল গল্পের  সেরাদের অন্যতম। নিজেকে অনুপ্রেরিত করতে আপনার জন্য এই একটি গল্পই যথেষ্ট। ধীর ‍ স্থীর ভাবে কোন  উদ্দ্যেগ গ্রহন করে সেই অনুযায়ী কাজ করলে সফলতা খুব সহজেই ধরা দেয়। শিখতে থাকুন , মটিভেটেড থাকুন।।





একটা পার্কের ভেতর পাশাপাশি দুইটা সুইমিংপুল।  একটাতে গভীর পানি আর একটাতে একটু অগভীর পানি।লোকজন সেখানে যাই সাতার   কাটে, গোশল করে। তিন জন বন্ধু যারা সাতার কাটতে পারে না তারা পুলের সামনের দিকে বসে আছে আর দেখছে অন্যান্যা মানুষরা কেমন করে  পানিতে সাতার কাটছে।

 প্রথম বন্ধুটি মনে মনে ভাবছে , “ ওরে বাবরে এই মানুষ গুলো কেমন করে  এই অসম্ভবকে সম্ভব করল। কি করে তারা নিজেকে পানিরে উপর ভাসিয়ে রাখছে।আমি যদি ডুবে যাই তবে আমাকে কে ঠেকাবে। আমার দ্বারা তো জিবনেও কাজ সম্ভব না।

এই ব্যাক্তি ১০০% ব্যার্থতার দিকে এগোচ্ছে। তার ভয় তাকে প্যারালাইজড করে রেখেছ।  সে ততদিন সাতার শিখতে পারবে না , যতদিন তার মনের এই অবস্থার পরিবর্তন করতে না পারবে।


দ্বীতিয় যে বন্ধুটি সে ভাবছে, “ হ্যা    আবার কি এমন কঠিন কাজ। হাত পা তো শুধু নড়াতে হবে। এদের চেয়ে ভালো তো আমি করতে পারব

 এই চিন্তা করে সে বন্ধুদের কে বসতে বলে গভীর পানির পুলে গিয়ে ঝাপ দিল।  আর কি যতই হাত পা নাড়াই কোন কিছুতেই কিছু হই না।। পুলের অন্য মানুষেরা তাকে ধরে পাড়ে নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করতে থাকে কেউ কেউ পরামর্শ দেয় যদি সাতার শিখতে চাও তবে আগে ভাসমান কিছু নিয়ে সাতার  অগভীর পানিতে সাতার শেখো। তার পর গভীর পানিতে এসো সাতার কাটতে।

তৃতীয় বন্ধু টি এই সব কিছু দেখছিল  আর ভাবল, “ এই লোকগুলো যদি সাতার করতে পারে তাহলে আমিও পারব। কিন্তু যেটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা হলো এই মানুষগুলো  এমন কিছু করেছে সাতার কাটার আগে যা এখনও আমি করিনি।

সে তার বন্ধুকে দেওয়া পরামর্শটি গ্রহণ করল।  আরো কিছু লোকদের কাছে সাতার নিয়ে প্রশ্ন করল।আপনি সাতার কিভাবে শিখেছেন?  কোথা থেকে শিখেছেন? কত সময় লেগেছিল শিখতে?” 

সে প্রথমে গেল অগভীর পানিতে আর সাতার শিখতে লাগল। এখানে তার কোন ভয় নেই। কোন চিন্তা নেই ডুবে যাওয়ার।  তার কারণ তার পা মাটিতে আছে। ধীরে ধীরে শিখতে শিখতে সে গভীর পানিতে সাতার শেখাও শিখে ফেলল।

এখন এই বন্ধুটির কাছে গভীর নদীর পানিতেও সাতার কাটা কোন ব্যাপার না।সেটা হোক ঢেউ এর দিকে বা ঢেউয়ের বিপরীত দিকে।

নৈতিকতা::  আমাদের মধ্যে  এমন হাজারো লোক আছে যারা চিন্তা তো করি কোন কিছু করার কিন্তু কোন ধরনের কোন এ্যাকশান নিই না। এমন লোক হাজারো  আছে যা এ্যাকশান তো নিয়ে  নিই কোন চিন্তা ভাবনা ছাড়াই। এই দুই প্রকারের লোক  কখোনও তাদের জীবনে সফলতার মুখ দেখতে পারে না।

সফল তারাই হয় যারা চিন্তা করে চিন্তা অনুযায়ী কাজ করতে থাকে জলদিবাজী তে না। ধীরে ধীরে তারাই তাদের কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌছে যাই।।





0 Comments:

Post a Comment